User Tag List

Results 1 to 11 of 11

Thread: এভারেস্টে বাংলাদেশ

  1. #1
    Member
    • 's Gadgets
      • Motherboard:
      • Gigabyte G-31|Intel H55 Chipset
      • CPU:
      • pentium 4 (3.6 ghz)|Intel Core i3-370M Processor (2.4GHz), 3MB Cache
      • RAM:
      • 2 GB DDR2 | 2 gb DDR3
      • Hard Drive:
      • Sata 200 GB|SATA 320 GB
      • Graphics Card:
      • Display:
      • samsungSyncMaster 18.5' Wide LCD|15.6" High Definition 1366x768 WLED Display
      • Sound Card:
      • BUILT IN
      • Speakers/HPs:
      • Creative 2:1
      • Keyboard:
      • DeLUX PS2
      • Mouse:
      • A4 tech Optical
      • Controller:
      • microsoft XBOX 360 controller for windows [wired] | Logitech Rumblepad 2 | Logic chinese gp |
      • Power Supply:
      • normal ৮০০ টাকা এর মাল :P
      • Optical Drive:
      • DVD rom|8x DVD+/-RW with double layer write capable
      • USB Devices:
      • 1 gb pendrive
      • UPS:
      • nai :))
      • Operating System:
      • Windows Se7en ULTIMATE x64 BIT RTM build 7600 Final :)
      • Comment:
      • Desktop|Dell Inspiron 15R black laptop
      • ISP:
      • Zip (256 kbps), Qubee Prepaid (512 kbps)
      • Download Speed:
      • 12-15
      • Upload Speed:
      • 12-20
    Upal-de-choosen1™'s Avatar
    Join Date
    May 2009
    Location
    kajipara,mirpur
    Posts
    1,464

    Default এভারেস্টে বাংলাদেশ

    বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকা উড়ল এভারেস্টের চূড়ায়। বাংলাদেশের যুবক মুসা ইব্রাহীম পৃথিবীর সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ এভারেস্টের শিখরে পা রাখলেন গতকাল রোববার ২৩ মে নেপাল সময় সকাল সাড়ে আটটার দিকে। ৩০ বছর বয়সী মুসা ইব্রাহীমই একমাত্র বাংলাদেশি, যিনি এভারেস্ট জয় করলেন।
    Name:  2010-05-23-20-08-43-030928800-musa.jpg
Views: 98
Size:  65.6 KB
    মুসা ইব্রাহীম গত ২০ এপ্রিল এভারেস্টের তিব্বতের অংশ দিয়ে অভিযান শুরু করেন। তিনি ‘হিমালয়ান গাইডস নেপাল’-এর সহযোগিতায় এই অভিযানে অংশ নেন। হিমালয়ান গাইডসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ঈশ্বরী পাড়ওয়াল প্রথম আলোকে টেলিফোনে নিশ্চিত করেছেন, ২৬ জনের একটি দল গতকাল এভারেস্টচূড়ায় উঠতে সক্ষম হয়েছে। তাঁদের একজন বাংলাদেশের নর্থ আলপাইন ক্লাবের মুসা ইব্রাহীম। ১৪ জন নেপালি শেরপা ছাড়াও এভারেস্ট বিজয়ীদের ওই দলে ছয়জন যুক্তরাজ্য, তিনজন মন্টেনিগ্রো ও একজন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। মুসার সহযোগী ছিলেন দুজন নেপালি শেরপা।
    ঈশ্বরী পাড়ওয়ালকে উদ্ধৃত করে কাঠমান্ডুতে বাংলাদেশের উপ-মিশনপ্রধান নাসরিন জাহান টেলিফোনে ও মেইল বার্তায় প্রথম আলোকে মুসা ইব্রাহীমের এভারেস্ট জয়ের তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মুসা প্রথমে ওয়্যারলেস রেডিও থেকে এভারেস্ট বেসক্যাম্পে খবরটি পাঠানোর ব্যবস্থা করেছিলেন। নাসরিন জাহান এই সাফল্যের খবরটি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে জানিয়েছেন বলে জানান।
    ঈশ্বরী পাড়ওয়াল প্রথম আলোকে জানান, মুসা আজ (সোমবার) সন্ধ্যার দিকে অগ্রবর্তী বেসক্যাম্পে ফিরে আসবেন। আগামীকাল তিনি মূল বেসক্যাম্পে ফিরবেন। তারপর তিব্বতিয়ান মাউন্টিয়ারিং অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে বিজয়ীদের সনদ দেওয়া হবে। এই সনদ পাওয়ার পরই মুসা ইব্রাহীম এভারেস্ট বিজয়ের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি পাবেন। তার আগে এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা পাওয়া যাবে না।
    মুসা ইব্রাহীমের অভিযান-সহযোগী মুক্তিনাথ ট্রাভেলসের কমল আরিয়াল কাঠমান্ডু থেকে সকালে মুসার স্ত্রী উম্মে সরাবন তহুরাকে ই-মেইলে সুখবরটা জানান। এরপরই মুসার এভারেস্ট বিজয়ের খবর ছড়িয়ে পড়ে। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক, বিভিন্ন ব্লগসহ গণমাধ্যমে খবরটি প্রচারিত হয়। এরপর রাতে বাংলাদেশ টেলিভিশনসহ বিভিন্ন বেসরকারি টিভি চ্যানেল, বিবিসি ও এবিসি রেডিওতেও বাংলাদেশের এভারেস্ট জয়ের খবরটি প্রচার করা হয়।
    কমল আরিয়াল প্রথম আলোকে ই-মেইলে জানান, এভারেস্টে ওঠার পর মুসা ইব্রাহীম প্রথমে বেসক্যাম্পে বার্তা পাঠান। বেসক্যাম্প হিমালয়ান গাইডকে ওই বার্তা পৌঁছে দেয়। হিমালয়ান গাইড প্রথমেই সে বার্তা আরোহীর নিকটজনকে জানান।
    প্রসঙ্গত, সব পর্বতারোহীর ক্ষেত্রেই এই প্রক্রিয়ায় প্রাথমিক তথ্য পাওয়া যায়। মুসা ইব্রাহীমের ক্ষেত্রেও এই প্রচলিত প্রক্রিয়ার ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ন ছিল। এভারেস্ট বিজয়ের ক্ষেত্রে বেসক্যাম্পই প্রাথমিক তথ্যের একমাত্র সূত্র। এরপর আরোহী নেমে এলে তথ্য-প্রমাণসহ তাঁর এভারেস্ট বিজয় নিশ্চিত করা হয়। বেসক্যাম্পে না পৌঁছানোয় গত রাত পর্যন্ত মুসা ইব্রাহীমের সঙ্গে কথা বলা বা তাঁর সরাসরি কোনো প্রতিক্রিয়া জানা সম্ভব হয়নি।
    প্রথম আলোর রস+আলোর নিয়মিত লেখক অনিক খান কাঠমান্ডুতে অবস্থান করছেন। তিনিও সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলোর সঙ্গে সরাসরি কথা বলে মুসার এভারেস্ট বিজয়ের তথ্য জানিয়েছেন।
    মুসা ইব্রাহীমের জন্ম ১৯৭৯ সালে লালমনিরহাটের মোগলহাটে। বাবা আনসার আলী, মা বিলকিস বেগম। তিনি ঠাকুরগাঁওয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট থেকে মাস্টার্স করেন। তিনি ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও মাস্টার্স করেন।
    মুসা দীর্ঘদিন প্রথম আলোয় সাংবাদিকতা করেন। বর্তমানে তিনি ডেইলি স্টার-এ সহসম্পাদক হিসেবে কর্মরত।
    ২০০২ সালে অন্নপূর্ণা ট্রেইলে অভিযানের মধ্য দিয়ে মুসা স্বপ্নপূরণের পথে অগ্রসর হন। সেবার উঠেছিলেন ১২ হাজার ৪৬৪ ফুট। এরপর তিনি একটার পর একটা পর্বতারোহণ প্রশিক্ষণ ও অভিযানে অংশ নিতে থাকেন। তিনি হিমালয়ান মাউন্টেনিয়ারিং ইনস্টিটিউট থেকে দুই দফায় গত ছয় বছরে দুটো পেশাদারি পর্বতারোহণের প্রশিক্ষণ নেন। গত বছর জুনে তিনি ও তাঁর সহযোগী তৌহিদ হোসেন অন্নপূর্ণা-৪-এর শিখর জয় করেন প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে।
    মুসা ইব্রাহীমের স্ত্রী উম্মে সরাবন তহুরা দীর্ঘদিন প্রথম আলোয় সাংবাদিকতা করেছেন। বর্তমানে তিনি ময়মনসিংহে জেলা আদালতের সহকারী জজ। তাঁদের একমাত্র সন্তান ওয়াসি ইব্রাহীমের বয়স দেড় বছর।
    মুসা নর্থ আলপাইন ক্লাব বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক। তাঁর এই এভারেস্ট অভিযানে আরও অনেকের সঙ্গে বিশেষভাবে সহযোগিতা করেছে প্রথম আলো।

    গর্বের ব্যাপার......
    Details: http://www.prothom-alo.com/detail/da...24/news/65679#

    Barcelona & Arsenal FTW !!

  2. #2
    Member
    • avas911's Gadgets
      • Motherboard:
      • Gigabyte GA-EG41MF-US2H
      • CPU:
      • Intel Pentium Dual Core E6500 2.9 GHz 2MB L2 1066MHz FSB
      • RAM:
      • 2x2GB 800 MHz Apecer at 5-5-5-15
      • Hard Drive:
      • OCZ Vertex 3 120GB Sata III & Samsung 103SJ 1 TB F3
      • Graphics Card:
      • Sapphire ATI RADEON HD6850 1GB GDDR5
      • Display:
      • Philips 107S7 17" at [email protected]
      • Sound Card:
      • Built In Realtek ALC883
      • Speakers/HPs:
      • Creative SBS A200 / Cosonic Generic / Logitech Ultimate Ears 200vi/SoundMAGIC E10M IEM
      • Keyboard:
      • A4Tech
      • Mouse:
      • A4Tech X7 XL-747H 3600 DPI
      • Controller:
      • None
      • Power Supply:
      • Delta GPS-500AB A 500W
      • Optical Drive:
      • Asus 16x IDE DVD R
      • USB Devices:
      • Transcend 500 8GB & Corsair Survivor USB 3.0 16GB & Samsung Class 10 16GB mSDHC
      • UPS:
      • Rahimafrooz 600VA Premium
      • Operating System:
      • Win7 Ultimate 64Bit
      • Comment:
      • Slow in gaming
      • ISP:
      • Link3 512
      • Download Speed:
      • 70
      • Upload Speed:
      • 70
    avas911's Avatar
    Join Date
    Nov 2008
    Location
    Mohammadpur
    Posts
    4,251

    Default Re: এভারেস্টে বাংলাদেশ

    yoooooooooooooooooooooooooooooooooooooo....joss news....

  3. #3

    Default Re: এভারেস্টে বাংলাদেশ

    nice abc Bangla typing by prothom-alo !! LOL!
    congratulation to Musa Ibrahim, it's a great achievement for him and for all the people of BD.
    Last edited by tiGer c/-\T; May 24th, 2010 at 11:33.

  4. #4

    Default Re: এভারেস্টে বাংলাদেশ

    Ei matro TV tey dekhlam.
    Khub bhalo laglo.

  5. #5
    Member
    • sadi_warhead's Gadgets
      • Motherboard:
      • MSI G41
      • CPU:
      • Intel(R) Core(TM)2 Quad CPU Q8400 @ 2.66GHz (4 CPUs)
      • RAM:
      • ADATA 4096MB RAM DDR3
      • Hard Drive:
      • 1 TB Samsung H3
      • Graphics Card:
      • Gigabyte GTX 560OC-1GI 1 GB
      • Display:
      • 22" samsung 2233sw
      • Sound Card:
      • Realtek HD Audio output input
      • Speakers/HPs:
      • Creative 2.1/A4tech headphones
      • Keyboard:
      • BenQ mulitmedia
      • Mouse:
      • A4 teCH
      • Controller:
      • Sony controller
      • Power Supply:
      • Fortex 600w
      • Optical Drive:
      • Samsung DVD RW
      • Operating System:
      • Windows 7 Ultimate 64-bit (6.1, Build 7600)
      • Comment:
      • Motamuti-:| :)
      • ISP:
      • Ispros
      • Console:
      • 128
    sadi_warhead's Avatar
    Join Date
    Nov 2008
    Location
    MIRPUR
    Posts
    3,087

    Default Re: এভারেস্টে বাংলাদেশ

    shabash bangladesh


    Fly High, Do or Die, Dare to Dream, Cheer Extreme!


  6. #6
    VIP Member
    • Mad Monk's Gadgets
      • Motherboard:
      • 865PE...Gigabyte
      • CPU:
      • P4 2.4Ghz (478 socket)
      • RAM:
      • 512+512 DDR1
      • Hard Drive:
      • 80GB samsung IDE
      • Graphics Card:
      • Geforce Fx 5200 Palit Brand,128mb AGP Card
      • Display:
      • Samsung 793 Magic Bright
      • Sound Card:
      • Built in :(
      • Speakers/HPs:
      • 2:1 Creative
      • Keyboard:
      • A4Tech
      • Mouse:
      • A4Tech
      • Controller:
      • UCOM Dual
      • Power Supply:
      • normal
      • Optical Drive:
      • Asus & LiteON
      • Operating System:
      • XP Sp2
      • Benchmark Scores:
      • 0-2 !! or something Shitty
      • Comment:
      • Old is Gold
      • Download Speed:
      • 100
      • Upload Speed:
      • 40
    Mad Monk's Avatar
    Join Date
    Feb 2008
    Location
    Dhaka
    Posts
    4,784

    Default Re: এভারেস্টে বাংলাদেশ


  7. #7
    Moderator
    • abir's Gadgets
      • Motherboard:
      • Gigabyte G41M-ES2L | Intel 965 HP
      • CPU:
      • Intel Pentium Dual Core E5400 2.7GHz 800MSB| Intel T5670 Core 2 Duo 1.8GHz 800MHz FSB
      • RAM:
      • (2+2) 4GB DDR II (800MHz) | 1GB RAM
      • Hard Drive:
      • 320 GB SATA Samsung | 160GB SATA
      • Graphics Card:
      • Sapphire Radeon 4770 512MB | Intel GMA X3100
      • Display:
      • DELL Inspiron 18.5" LCD |14.1" TFT LCD
      • Sound Card:
      • Realtek Builtin Audio
      • Speakers/HPs:
      • Creative Inspire 2.1
      • Keyboard:
      • Genius Slimstar 355 Gaming Keyboard | A4Tech Anti RSI (USB PS2)
      • Mouse:
      • A4tech 7K Office (USB)| HP
      • Power Supply:
      • Deluxe DLP 388A 450W
      • Optical Drive:
      • ASUS 16X DVD Drive & Liteon DVDW| Asus DVD RAMRW LightScribe
      • USB Devices:
      • 4GB Apacer Pendrive
      • UPS:
      • OVO 650VA
      • Operating System:
      • Windows 7 x64 | Windows XP SP2 & Ubuntu 9.04
      • ISP:
      • Smile Internet (Bronze)
    abir's Avatar
    Join Date
    Feb 2008
    Location
    Azimpur
    Posts
    7,913

    Default Re: এভারেস্টে বাংলাদেশ

    Quote Originally Posted by Mad Again View Post
    তিনি জিজ্ঞাসিলেন "তুমি কি বিশ্বাস করো মুসা ইব্রাহিম এভারেস্টে উঠিয়াছে? আমি বলিলাম বিশ্বাস করি।
    তিনি পুনরায় জিজ্ঞাসিলেন "তুমি আপন চোখে দর্শন না করিয়া কিভাবে বিশ্বাসিলে?"
    আমি বলিলাম, ¤¤"প্রভু, মুসার দলে তো আর কোনো বাঙালি ছিল না, তাহলে কে তাহাকে পা টানিয়া ফেলিয়া দিবে? সুতরাং সে উঠিয়াছে।"
    প্রভু বিমর্ষ গলায় বলিলেন, "কথা সত্য বলিয়াছ। একা একা রওনা দিলে বাঙালি চান্দেও যাইতে পারিবে, কিন্তু তোমরা তো দল বাধিয়াই রহিলে।" [আরিফ জেবতিক]


    Don't believe everything in blogs.
    Sometimes blogging is done just for shitting people

    Just look at this young man first.


    "Game after game after game, I realized what is most important of my life - FOOTBALL.."
    I bleed red, Man Utd 4ever..
    ---------------------
    অনেক দূরের একলা পথে, ক্লান্ত আমি ফিরি তোমার কাছে, মুখোশ খুলে বসে রই জানলার ধারে..

  8. #8
    VIP Member KinG SRS's Avatar
    Join Date
    Feb 2008
    Location
    Dhaka
    Posts
    3,063

    Default Re: এভারেস্টে বাংলাদেশ

    Its a great news for us and bangaliii ki na pare!!!

  9. #9
    Moderator
    • abir's Gadgets
      • Motherboard:
      • Gigabyte G41M-ES2L | Intel 965 HP
      • CPU:
      • Intel Pentium Dual Core E5400 2.7GHz 800MSB| Intel T5670 Core 2 Duo 1.8GHz 800MHz FSB
      • RAM:
      • (2+2) 4GB DDR II (800MHz) | 1GB RAM
      • Hard Drive:
      • 320 GB SATA Samsung | 160GB SATA
      • Graphics Card:
      • Sapphire Radeon 4770 512MB | Intel GMA X3100
      • Display:
      • DELL Inspiron 18.5" LCD |14.1" TFT LCD
      • Sound Card:
      • Realtek Builtin Audio
      • Speakers/HPs:
      • Creative Inspire 2.1
      • Keyboard:
      • Genius Slimstar 355 Gaming Keyboard | A4Tech Anti RSI (USB PS2)
      • Mouse:
      • A4tech 7K Office (USB)| HP
      • Power Supply:
      • Deluxe DLP 388A 450W
      • Optical Drive:
      • ASUS 16X DVD Drive & Liteon DVDW| Asus DVD RAMRW LightScribe
      • USB Devices:
      • 4GB Apacer Pendrive
      • UPS:
      • OVO 650VA
      • Operating System:
      • Windows 7 x64 | Windows XP SP2 & Ubuntu 9.04
      • ISP:
      • Smile Internet (Bronze)
    abir's Avatar
    Join Date
    Feb 2008
    Location
    Azimpur
    Posts
    7,913

    Default Re: এভারেস্টে বাংলাদেশ

    এভারেস্টঃ যেখানে লাশ পচেনা।
    মুসার এভারেস্ট জয়ের কাহিনী।


    ‘প্রথম আলো ফুটছে। সূর্যের প্রথম রশ্মি এসে পড়ল এভারেস্টের চূড়ায়। ঠিক তখনই আমি এভারেস্টের মাথায়। আমার কী যে ভালো লাগল। এই আলো। এই আমার স্বপ্নপূরণ। ২৩ মের প্রথম আলোকরশ্মি এভারেস্টের চূড়ায় আমাকে স্বাগত জানাল।’
    তিব্বতের বেসক্যাম্পে মুসা ইব্রাহীম। আর আমি কাঠমান্ডুর মধুবন গেস্ট হাউসে। মুসা ইব্রাহীম গতকাল বুধবার সকালে ফিরে এসেছেন তিব্বতের পর্বতারোহণ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে সনদ নিয়ে। আমি ফোনে তাঁকে অভিনন্দন জানিয়ে বললাম তাঁর পুরো যাত্রাটা আমাকে বর্ণনা করতে। তিনি বলতে শুরু করলেন।
    এপ্রিলের ১০ তারিখ, ২০১০। মুসা বিদায় নিলেন কাঠমান্ডু থেকে। কাঠমান্ডুর থামেলের মুক্তিনাথ হলিডের কমল আরিয়াল সব ব্যবস্থা করেই রেখেছিলেন। পাঁচজনের ভিসা করা হয়েছে চীনের দূতাবাস থেকে। এই পাঁচজন হলেন মুসা ইব্রাহীম, কৈলাশ তামাং, সোমবাহাদুর তামাং, লাকপা নুরু শেরপা আর জিরেল লাল বাহাদুর। মুসার পরনে সেদিন নিত্য উপহারের টি-শার্ট, তাতে জাতীয় পতাকার সবুজের মধ্যে লাল বৃত্ত, আর লেখা বাংলাদেশ।
    ভিসার ব্যবস্থা, শেরপা আর ট্যুর ব্যবস্থাপনার খুঁটিনাটি মুসা দীর্ঘদিন আগে থেকে করে রেখেছিলেন। টাকা জোগাড় হয়নি শেষতক। কিন্তু তিনি আয়োজনটা থেকে পিছপা হতে চাননি। তিনি যদি কিছু করার প্রতিজ্ঞা করেন, তা তিনি করেই ছাড়েন। ফেসবুকে এটা তাঁর ঘোষণা। ভিশন ২০১০, মিশন এভারেস্ট, ২০০২ সাল থেকে এটা তাঁর ঘোষিত লক্ষ্য। টাকা জোগাড় না হলেও তিনি তাঁর প্রবাসী বড় বোনের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলে নিয়ে তাঁকে জানিয়ে দিলেন, আপা, যাচ্ছি। গায়ে বাংলাদেশের পতাকাখচিত পোশাক। মুসা গাড়িতে উঠে পড়লেন। নেপাল-তিব্বত সীমান্তের জায়গাটার নাম তাতপানি। সেখানে তাঁরা সীমান্ত অতিক্রম করলেন। এখন আর তাঁরা নেপালে নয়, তিব্বতে। তিব্বতে তাঁরা রাত কাটালেন নাইলাম নামের একটা জায়গায়। এপ্রিলের ১২ তারিখটা রাত কাটালেন তিংরিতে। ফোর হুইল ড্রাইভ গাড়ি তাঁদের পৌঁছে দিল বেসক্যাম্পে। সেটা পাঁচ হাজার ২০০ মিটার উঁচুতে।
    ১৪ এপ্রিল। বাংলাদেশে পালিত হচ্ছে পয়লা বৈশাখ, শুভ নববর্ষ। বেসক্যাম্প থেকে মুসা আর তাঁর সঙ্গীরা শুরু করলেন এভারেস্ট অভিমুখে যাত্রা। শুভ যাত্রা।
    প্রথমে পাহাড়ি পথে যেতে হবে ১২ কিলোমিটার। চড়াই-উতরাই। মধ্যাকর্ষণের বিরুদ্ধে যাত্রা। মুসা এ কাজে নিজেকে প্রস্তুত করেছেন আগের আটটি বছর। একটার পর একটা প্রশিক্ষণ আর পর্বত অভিযানে অংশ নিয়েছেন। সর্বশেষ উঠেছেন অন্নপূর্ণায়। আট ঘণ্টা ক্রমাগত বন্ধুর পথ পাড়ি দিয়ে তাঁরা পৌঁছালেন অন্তর্বর্তী ক্যাম্পে। সকালবেলা রওনা দিয়েছিলেন। পৌঁছালেন বিকেলে।
    সে এক অফলা জায়গা, পত্রপুষ্পশূন্য, ভীষণ শুকনো বাতাস, চারদিকে কোনো গাছপালা নেই। আট ঘণ্টা ক্রমাগত হেঁটেই মুসা অসুস্থ হয়ে পড়লেন। মাথাব্যথা ভীষণ। ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত এই অন্তর্বর্তী ক্যাম্পে থাকলেন তাঁরা। ওখানে থাকতে হয় তাঁবুতে। সঙ্গের শেরপারা তাঁবু গাড়েন। রান্নাবান্না করার জন্যও লোক আছে ওই দলেই। খাওয়ার মধ্যে ভাত-ডাল-ডিম।
    মুসার শরীরটা খানিকটা ধাতস্থ হলো।
    পাহাড়ে ওঠার কতগুলো কষ্ট আছে। একটা হলো উুঁচ জায়গায় বায়ুর চাপ কম। শ্বাস নিতে কষ্ট হয়। অনেক সময়, অভ্যস্ত না হলে, চোখ বেরিয়ে আসতে চায়, কান ফেটে যায়, নাকে রক্ত আসে। হেলিকপ্টারে এভারেস্টে গেলেও সবাই সেখানে টিকতে পারে না।
    ১৮ এপ্রিল তাঁরা আবার রওনা হলেন। এবার মোটামুটি ১৮ জন অভিযাত্রী, বিভিন্ন দেশের। আর আছে শেরপারা।
    প্রচণ্ড শীত। গায়ে জ্যাকেট। পায়ে ভারী জুতা। সেই সব নিয়ে তাঁরা অ্যাডভান্সড বেসক্যাম্পে পৌঁছালেন। সেটা ছয় হাজার ৪৫০ মিটার উঁচুতে। আবার শরীরটাকে ধাতস্থ করতে হবে। এখানেও তাঁবু গাড়ল শেরপারা। এক তাঁবুতে দুজন করে থাকেন। এখানে ছয় দিন থাকলেন শুধু উচ্চতার সঙ্গে নিজেকে খাপ খাইয়ে নেওয়ার জন্য।
    আবার যাত্রা শুরু। ৫০০ মিটার উঁচুতে ওঠাও বড় কষ্ট। তুষারঢাকা খাড়া পথ। পায়ে সেই ধরনের জুতা। তাঁরা পৌঁছালেন সাত হাজার ১০০ মিটার উঁচুতে, নর্থকোলে। ওখানে রাত্রিবাস করলেন। আবার নেমে এলেন অ্যাডভান্স বেসক্যাম্পে। এভাবে একবার অ্যাডভান্স বেসক্যাম্প, একবার নর্থকোল করে খাপ খাইয়ে নিচ্ছেন শরীরটাকে। এর পরের ঘটনা শুনুন মুসার নিজের মুখে:
    ‘৩ মে। প্রচণ্ড খারাপ আবহাওয়া সেদিন। তুষারঝড় হচ্ছে। ৯০ কিলোমিটার বেগে বাতাস বইছে। সারা রাত তুষারপাত হলো। আমাদের তাঁবুর ওপরে প্রায় দেড় ফুট তুষার জমল, এক রাতে। সকালে আমরা ওপরে ওঠার ভাবনা বাদ দিয়ে অ্যাডভান্স বেসক্যাম্পে নেমে এলাম। ৪ মে আমরা নিচে। তারপর কী করব? আবহাওয়ার রিপোর্ট চেক করে দেখলাম, আগামী এক সপ্তাহ আবহাওয়া খুবই খারাপ থাকবে। আমরা ঠিক করলাম, এই ওপরে থেকে শরীরের শক্তি ক্ষয় করার কোনো মানে হয় না। আমরা নিচে বেসক্যাম্পে নেমে এলাম ৫ মে। বেসক্যাম্পে থাকলাম প্রায় ছয় দিন। আবার অ্যাডভান্স বেসক্যাম্পের দিকে রওনা দিলাম। ১৩ মে পৌঁছলাম সেখানে। এর মধ্যে আমাদের শেরপারা ক্যাম্প টু ক্যাম্প থ্রিতে তাঁবু খাটিয়ে রেখে এসেছে। তখনো আবহাওয়া খুবই খারাপ। ১৪ মের দিকে চীনা শেরপাদের দল ক্যাম্প ৩ পর্যন্ত গিয়ে রুট বানিয়ে রেখে এসেছে। দড়ি পুঁতেছে। আট হাজার ৩০০ থেকে আট হাজার ৮০০ মিটার পর্যন্ত ওরা রুট ঠিকঠাক করেও ফেলে। আমরা একটু সিদ্ধান্তহীনতায় ছিলাম, আমরা কি চীনাদের অনুসরণ করব, নাকি আমাদের মতো করে যাব। আমাদের শেরপারা, আমাদের ট্যুর অপারেটরের নেতা, সবাই মিলে আমরা আলোচনায় বসলাম। আমরা ঠিক করলাম, ২০ মের দিকে রওনা হব। অ্যাডভান্স ক্যাম্প থেকে নর্থকোল, ক্যাম্প টু, ক্যাম্প থ্রিতে পৌঁছাব। আমাদের বাংলাদেশের আরেকজন ছিলেন এম এ মুহিত, তিনি ১৯ তারিখে রওনা দিয়ে দিলেন। ঠিক করলাম, আমিও ১৯ তারিখেই রওনা দেব।’
    তারপর মুসা আবার রওনা হলেন অ্যাডভান্স ক্যাম্প থেকে। সেদিন প্রচণ্ড ঝড় হচ্ছে। নর্থকোলে দু-তিনটা তাঁবু উড়িয়ে নিয়ে গেছে বাতাস। ভেঙে গেছে ১২টা তাঁবু, একেবারেই নিশ্চিহ্ন। এখন কী করবেন মুসা আর শেরপারা? মনে হচ্ছে মৌসুমি দুর্যোগ শুরু হলো। আকাশে মেঘ। হোয়াইট আউট। প্রচণ্ড ঠান্ডা। শুনুন মুসার মুখে:
    ‘নর্থকোলে থাকলাম ১৯ তারিখ রাতে। ঠিক করলাম ২০ মে দেখব। তারপর আবহাওয়া খারাপ থাকলে নেমে যাব আর ভালো থাকলে উঠব। জানি না মুহিতদের দলের কী হলো। ওরা নেমে গেল ২১ মে। পরে শুনেছি, ওদের শেরপারা আবহাওয়া খারাপ দেখে সিদ্ধান্ত নেয় যে এই যাত্রা ওপরে ওঠার চেষ্টা করা নিরাপদ নয়।’
    ২১ মে সকাল নয়টা। মুসা বললেন, আল্লাহর রহমতে আবহাওয়া ভালো হতে লাগল। মুসা আর শেরপারা ক্যাম্প-২-এর দিকে রওনা দিলেন। হিমবাহ ছিল। হিমবাহর ওপর দিয়ে যাওয়া। শেষের দিকে পাথর। খাওয়ার অবস্থা খুব খারাপ। বরফ গলিয়ে পানি খাওয়া। চা, চিঁড়া, চকলেট। এর বাইরে কোনো খাওয়া নেই। শুনুন মুসার মুখে:
    ‘ক্যাম্প টুতে আমরা থাকলাম চারজন একই তাঁবুতে। সাত হাজার ৭০০ ফুট উঁচুতে, প্রচণ্ড শীত। মাইনাস টোয়েন্টি। ২২ মে ভোর পাঁচটায় শেরপারা আমাকে ঘুম থেকে জাগাল। তারা বলল, তুমি বুট পরো, আর যা যা পরার পরো, কিন্তু এত ঠান্ডা যে আমি বললাম, আমি পরতে পারছি না। বুট পরার পরে হাত ঠান্ডায় অবশ হয়ে গেছে। তুমি আমাকে ক্র্যাম্পুন ও হারনেস পরতে সাহায্য করো। ওরা ক্ষেপে গেল। তুমি ঠান্ডা সহ্য করতে পার না, তুমি পাহাড়ে উঠবে? তারপর ওরা সাহায্য করল। আমরা রওনা হলাম। আমার হাঁটার গতি কিন্তু ভালো ছিল। উৎসাহিত ছিলাম। দুপুর দুইটার দিকে ক্যাম্প থ্রিতে গিয়ে পৌঁছলাম।
    ‘২২ মে রাত আটটা। আমরা আবার রওনা হব। এর আগে অন্নপূর্ণা অভিযানে আমি ভোররাতে পাহাড়ে উঠেছি। কিন্তু রাত আটটায়? মাথার সঙ্গে টর্চ বাঁধা। সারা শরীর জ্যাকেট ইত্যাদিতে ঢাকা। আর এক পরত করে কাপড় চাপালাম। বিশেষ মোজা পরলাম। জুতা। তবে রাতের বেলা ওই পর্বতে শুরু হলো আলোর মিছিল। আরও ৫০-৬০ জন রওনা হচ্ছে। সবার কপালে টর্চ। আকাশে অর্ধেক চাঁদ। কিন্তু সেই আলোয় নয়, শুধু মাথার ওপরের টর্চের আলোয় যতটুকু দেখছি, ততটুকু পথ চলছি। ভাগ্যিস আর কিছু দেখি নাই। যদি দেখতাম, তাহলে ওই খাড়া দেয়ালের মতো পাহাড় বাইতে গিয়ে, তার নিচের অতল খাদের দিকে তাকাতে হলে আমি বোধ হয় ভয়েই আর উঠতে পারতাম না।’
    এর মধ্যে মুসা ইব্রাহীমেরা পাহাড় বাইছেন। তিন-চার ঘণ্টা পরে গিয়ে দেখতে পেলেন একটা মানুষের লাশ পড়ে আছে। তিনি বলছেন, ‘এর আগে আমি কখনো লাশ দেখিনি। লাশ দেখে খুব ভয় পেয়ে গেলাম। সর্বনাশ। এই জায়গায় এ অবস্থা হয় তা জানতাম, কিন্তু আমারও কি এই অবস্থা হবে? বেশ ওপরে একটা পাহাড় থেকে আরেকটা পাহাড়ের চূড়ায় উঠতে একটা মই বাইতে হয়। সেটা পার হলাম। তারপর প্রায় ৩০ ফুট খাড়া। পাথুরে দেয়াল পেরুতে হয়। আর মাত্র অল্প পথ। এখানে এসে আমার অক্সিজেন-যন্ত্রের পাইপ ফুটো হয়ে অক্সিজেন বেরিয়ে যেতে লাগল। আমার প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট হচ্ছে। বোধ হয় আমি মরেই যাচ্ছি। মৃত্যুযন্ত্রণা কাকে বলে আমি বুঝছি। শেরপারা টের পেয়ে যন্ত্রের ফুটো সারিয়ে ফেলল। প্রায় ৩০ সেকেন্ড আমি অক্সিজেন-যন্ত্র ছাড়াই ছিলাম। আমি হাপরের মতো করছিলাম। তারপর যন্ত্র সেরে গেলে আবার আমি অক্সিজেন টেনে নিলাম বুকের ভেতরে। আমি জীবন ফিরে পেলাম। আট হাজার ৬০০ ফুট পাড়ি দিয়েছি। আর মাত্র ২৪৮ ফুট। একটা শেষ খাড়াই পার হওয়ার পরে শেরপারা বলল, মুসা, এরপর মোটামুটি সমান জায়গায় পথ চলা। আর তেমন কষ্ট নাই। সেই জায়গাটায় উঠে আমার মনে হলো, যাক। উঠতে পারলাম তাহলে। হাঁটছি। ঠিক তখনই ২৩ মের ভোরের সূর্য তার কিরণ ফেলল এভারেস্টের চূড়ায়। প্রথম আলো গায়ে মেখে আমি এভারেস্টের চূড়ায় উঠে গেছি। আমার কী যে ভালো লাগল! ফার্স্ট লাইট। প্রথম আলো। আমি যে একটা স্বপ্ন দেখেছিলাম, আমি যে একটা লক্ষ্য স্থির করেছিলাম, সেটা পূরণ হলো।
    ‘আমি ধন্যবাদ জানালাম শেরপাদের। ওরা আমাকে জানাল অভিনন্দন। বাংলাদেশের পতাকা বের করলাম। এই লাল-সবুজ পতাকাটা ওড়াব বলেই তো জীবনের এই ঝুঁকি নেওয়া। তারপর প্রথম আলো আর ডেইলি স্টার-এর ব্যানার বের করে ছবি তুললাম। স্পনসরদের লোগো নিয়েও ছবি তুললাম।
    ‘মিনিট ২৫ ছিলাম এভারেস্টের একেবারে চূড়ায়। তারপর নামার পালা। দিনের আলো ঝকঝক করছে। এবার নিচে তাকিয়ে বলে উঠলাম, সর্বনাশ, কোন ভয়ংকর বিপজ্জনক জায়গায় আমি উঠেছি। রাতের বেলা তো কিছু টের পাইনি। এবার টের পাচ্ছি।
    ‘নামছি। এদিকে আমার শরীরের শক্তি কমে আসছে। খাওয়া নাই। পানিও নাই। আমার শরীর আর চলছে না। আমি আর পারছি না। আমি বসে পড়লাম। শেরপা বলল, তুমি যদি এ রকম করো, আমরা তোমাকে ফেলে রেখে চলে যাব। আমাদের তো আরও কাজ আছে। আমি বললাম, একটু পানি দাও। বরফ গরম করো। ওরা বলল, না এখানে থামা যাবে না।’
    মুসা তাকিয়ে দেখলেন আশপাশে বেশ কিছু মানুষের লাশ পড়ে আছে। তাঁর মনে হলো, এভারেস্টে ওঠা হলো। নামাটা বুঝি হলো না। মৃত্যু এখানেই লেখা আছে তাঁর। ওই লাশগুলোর পাশে তাঁকেও শুয়ে থাকতে হবে লাশ হয়ে। বরফে লাশ পড়ে রইবে বহু বছর। পচবে না।

    "Game after game after game, I realized what is most important of my life - FOOTBALL.."
    I bleed red, Man Utd 4ever..
    ---------------------
    অনেক দূরের একলা পথে, ক্লান্ত আমি ফিরি তোমার কাছে, মুখোশ খুলে বসে রই জানলার ধারে..

  10. #10
    VIP Member
    • Mad Monk's Gadgets
      • Motherboard:
      • 865PE...Gigabyte
      • CPU:
      • P4 2.4Ghz (478 socket)
      • RAM:
      • 512+512 DDR1
      • Hard Drive:
      • 80GB samsung IDE
      • Graphics Card:
      • Geforce Fx 5200 Palit Brand,128mb AGP Card
      • Display:
      • Samsung 793 Magic Bright
      • Sound Card:
      • Built in :(
      • Speakers/HPs:
      • 2:1 Creative
      • Keyboard:
      • A4Tech
      • Mouse:
      • A4Tech
      • Controller:
      • UCOM Dual
      • Power Supply:
      • normal
      • Optical Drive:
      • Asus & LiteON
      • Operating System:
      • XP Sp2
      • Benchmark Scores:
      • 0-2 !! or something Shitty
      • Comment:
      • Old is Gold
      • Download Speed:
      • 100
      • Upload Speed:
      • 40
    Mad Monk's Avatar
    Join Date
    Feb 2008
    Location
    Dhaka
    Posts
    4,784

    Default Re: এভারেস্টে বাংলাদেশ

    Josssssssss

  11. #11

    Default Re: এভারেস্টে বাংলাদেশ

    Ibrahim Musa-r ei shafollo desh ke onek uporey eney disey. Kintu aajker AMADER SHOMOY paper ey Musa-r news er paashey duita headlines emon:

    SHATKIRA TEY BHIKKHUK-ER BARI DOKHOL KOREY AWAMI LEAGUE OFFICE!

    and

    ITALY TEY SHISHU PORNO FILM TOIRI O BIKRI-R OBHIJOG EY MOHILA SHOHO 3 BANGLADESHI GREFTAR

    Musa-r moto lok jon desh ke joto tukui na agai niye jai, ei dhoron-er kormo-kando desh ke shei ager jaiga tey teney firai.
    Jottoshob!

Similar Threads

  1. Replies: 29
    Last Post: April 21st, 2010, 14:03
  2. Replies: 5
    Last Post: December 13th, 2009, 09:51
  3. Replies: 66
    Last Post: October 22nd, 2009, 22:44
  4. Replies: 23
    Last Post: May 21st, 2009, 13:34
  5. Replies: 0
    Last Post: September 16th, 2008, 23:58

Tags for this Thread

Posting Permissions

  • You may not post new threads
  • You may not post replies
  • You may not post attachments
  • You may not edit your posts
  •  
Page generated in 0.43682 seconds with 15 queries.