User Tag List

Results 1 to 8 of 8

Thread: এ্যন্ড্রয়েড ফোন কেনার আগে যে বিষয় গুলো মা&

  1. #1
    Member
    • babu.'s Gadgets
      • Motherboard:
      • Gigabyte H81 S2PV/ Gigabyte B75 D3V
      • CPU:
      • Core i5 4590/ i5 3470
      • RAM:
      • 8 GB Adata XPG 1600 @ CL9/ 8 GB Team
      • Hard Drive:
      • 3 TB WD Blue
      • Graphics Card:
      • Shaphire R9 270X VaporX
      • Display:
      • LG 22'' mp65HQ/ Dell 17''
      • Speakers/HPs:
      • Altec VS4621, Skullcandy INK,D airphone
      • Power Supply:
      • Tharmaltake TR2 600w/ TT LP 430w
      • USB Devices:
      • Transcend 2TB Portable HDD
      • UPS:
      • None
      • Operating System:
      • Windows 10, 7(64 bit)
      • Benchmark Scores:
      • CPU - 7.6, Ram - 7.7, GPU 7.9, HDD - 5.9
      • ISP:
      • Banglalion
    babu.'s Avatar
    Join Date
    Mar 2012
    Location
    Khulna
    Posts
    1,076

    Arrow এ্যন্ড্রয়েড ফোন কেনার আগে যে বিষয় গুলো মা&

    এ্যন্ড্রয়েড ফোন কেনার আগে যে বিষয় গুলো মাথায় রাখবেন

    আপনি যদি স্মার্টফোন বা এ্যন্ড্রয়েড ফোন কেনার কথা ভেবে থাকেন,তাহলে হয়ত ভাবছেন কোন ফোন কিনবেন বা কোন কনফিগারেশনের নেবেন ইত্যাদি।আজ আমরা বেশ কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করব যা আপনাকে এ্যন্ড্রয়েড বা স্মার্টফোন কেনার জন্য সাহায্য করবে।



    অপারেটিং সিস্টেমঃ

    অপারেটিং সিস্টেম স্মার্টফোনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ আপনি স্মার্টফোন ব্যাবহারের অভিজ্ঞতা নেবেন এই অপারেটিং সিস্টেম এর মাধ্যমে।স্মার্টফোনের জন্য বেশ কয়েকটি অপারেটিং সিস্টেম জনপ্রিয়তা পেয়েছে এর মধ্যে আছে হল এ্যন্ড্রয়েড,অ্যাপেলের iOS ৬ ,উইন্ডোজ এবং ব্লাকবেরি ১০।বর্তমানে এ্যন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের জনপ্রিয়তা সবচেয়ে বেশি।কারণ হল বেশ কিছু বা বেশির ভাগ নামকরা স্মার্টফোন প্রস্তুতকারী কোম্পানী এই এ্যন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমকে তাদের ডিভাইসের সাথে খাপ খাইয়েছে।শুধু তাই না এটা কাস্টমাইজ করা অ্যাপেলের অপেরাটিং সিস্টেম থেকে অনেক বেশি।তার থেকে বড় বিষয় হল অ্যাপেলে্র আপস স্টোরে যে পরিমাণ আপস আছে গুগল প্লেতে প্রাই সেই পরিমাণ আপস আছে,প্রায় ৭০০০০০।

    এ্যন্ড্রয়েডের লেটেস্ট ভার্সন হল জেলী বিন যাতে অফলাইন ভয়েস টাইপিং আপগ্রেড করা হয়েছে।তাছাড়া গুগল তাদের সার্চ দেখে বুখতে পারে আপনি কি চাচ্ছেন।এ্যন্ড্রয়েড হল ওপেন সোর্স যার ফলে স্যামসাং,এইস টি সি এবং এল জি এর মত কোম্পানিগুলো প্রতিদিনই নিত্য নতুন ফিচার যুক্ত করছে।

    এ্যন্ড্রয়েডে তেমন কোন সমস্যা না থাকলেও লেটেস্ট ভার্সন আপডেট দেওয়া এবং ম্যাল ওয়ার এর সমস্যা আছে।

    স্ক্রীন সাইজঃ




    স্ক্রীন সাইজ আপনি কেমন চান তা আপনার ব্যাক্তিগত ব্যাপার।তবে ৪ ইঞ্ছির নিচে না নেওয়া ভাল।আই ফোন ৫ এর ৪ ইঞ্ছি এবং ব্লাক বেরি জেড ১০ এর ৪.২ ইঞ্ছি ডিসপ্লে যা ১ হাতে ব্যাবহারের জন্য আদর্শ।আর এক ধরনের আছে যাকে বলে ফ্যাব্লেট ,যেমন,গ্যালাক্সী নোট ২ ,৫.৫ ইঞ্ছি ডিসপ্লে,আপনাকে ২ হাত ব্যাবহার করতে হবে। তবে বর্তমানে জনপ্রিয় হল ৪.৫ থেকে ৫ ইঞ্ছি ডিসপ্লে ,ব্যাবহার করা হয়েছে গ্যালাক্সী এস ৪ এবং এইস টি সি ১।এই সাইযের স্ক্রীন গুলো গেম খেলা,মুভি দেখা এবং টাইপিং করার জন্য পার্ফেক্ট।

    সি পি ইউ ঃ

    এই বিষয় নিয়ে বেশ কিছু জটিলতা আছে।যেমন, quad-core Qualcomm Snapdragon 600 প্রসেসর দিয়ে আপনি হাই স্পিড গেম,মাল্টিটাস্ক সহ বেশ কিছু সুবিধা পাবেন যা আপনি ডুয়াল কোর চিপে পাবেন না। Nvidias Tegra 4 প্রসেসর খুব শক্তিশালী কিন্তু এখনো স্মার্টফোনে আসে নি।

    র্যামঃ

    ২ জিবি র্যাম হাই কোয়ালাটির স্মার্টফোনের জন্য আদর্শ এবং সাথে যদি ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ থাকে।কেনার সময় দেখে নেবেন মেমরি এক্সপ্যান্ড করা যাবে কিনা।যদি এক্সপ্যান্ড করা না যায় তবে হায়ার ইন্টারনাল স্টোরাজ ভার্সন নেবেন।

    ক্যামেরাঃ

    ১২ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা মোটামুটি ভাল ছবি তোলার জন্য যথেষ্ঠ।ছবির মান নির্ভর করবে সেন্সরের সাইজ এবং লেন্সের কোয়ালিটির উপর।যেমন এইস টি সি ওয়ান ছবি তোলে ৪ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা দিয়ে কিন্তু ৩০০ % বেশি ব্রাইট হবে অন্যান্য ফোনের ক্যামেরা থেকে।আবার গ্যালাক্সী এস ৪ একই সাথে সামনে এবং পেছনের ছবি তুলতে পারে।

    ব্যাটারীঃ
    [SIZE=2]

    ব্যাটারী লাইফ বেশ কিছু ফ্যাক্টরের উপর নির্ভর করে যেমন,ডিসপ্লে সাইজ,ডিসপ্লে ব্রাইটনেস,আপস এর ব্যাবহার,বিভিন্ন সেন্সর,ওয়াই ফাই ইত্যাদি।বর্তমান বাজারে পাওয়ার ফুল ২ টা স্মার্টফোনের ব্যাটারী হল Motorola Droid RAZR Maxx HD যা 3,300 mAh ।ব্যাবহার করা যায় ৮ ঘন্টা এর বেশি।
    Galaxy Note II তে আছে 3,100 mAH, ব্যাবহার করা যায় ১০ ঘন্টার বেশি।খেয়াল রাখবেন ব্যাটারী এর সাইজ বড় কথা না।প্রায় প্রতিটা ব্রান্ডের পাওয়ার সেভ অপশন থাকে।যেমন মটরলার Smart Actions app,স্যামসাং এর পাওয়ার সেভিং মোড।

    স্পেসাল ফিচারঃ

    প্রায় প্রতিটি নামি দামি ব্রান্ড গুলো তাদের নতুন ফোনের সাথে স্পেশাল ফিচার দিচ্ছে।যেমন Samsung Galaxy S4, LG Optimus G Pro এবং HTC One টিভি রিমোট হিসাবে ব্যাবহার করা যায়,কারণ তারা IR blaster এবং dedicated app যুক্ত করেছে।


    সবচেয়ে ভাল হয় কেনার আগে আপনি ঠিক করে নিন আপনি কোন পারপাজে ফোন কিনছেন।তারপর আপনার বাজেট ঠিক করেন।এবার একই বাজেটের সব ফোন গুলোর তুলনা করে নিয়ে নিন আপনার পছন্দের স্মার্টফোন।

    [/SIZE:
    ব্যাটারির চার্জ ]
    স্মার্টফোনগুলো যেন একেকটি পূর্ণাঙ্গ কম্পিউটার।
    এমনকি সাধারণ কম্পিউটারের চেয়েও বাড়তি কিছু
    পাওয়া যায় স্মার্টফোনে। কিন্তু সব ব্যবহারকারীরই
    প্রায় এক অভিযোগ, ব্যাটারির চার্জ বেশিক্ষণ
    থাকে না। আগের জমানার মোবাইল ফোনগুলোর তুলনায়
    স্মার্টফোনে কাজ করার সুযোগ অনেক
    বেশি বলে ব্যাটারিও বেশি ব্যবহূত হচ্ছে। তবে সাধারণ
    কিছু অভ্যাসের মাধ্যমে ব্যাটারির চার্জ বেশি সময়
    ধরে রাখা যায়।
    পর্দার ঔজ্জ্বল্য কমিয়ে রাখা
    স্মার্টফোনের পর্দার ব্রাইটনেস বা ঔজ্জ্বল্য
    কমিয়ে রাখা ভালো। ফোনের সেটিংস
    থেকে এটি পরিবর্তন করা যায়, আবার
    কোনো কোনো মোবাইলে ব্রাইটনেস পরিবর্তনের জন্য
    শর্টকাট কি-ও থাকে। কিছুদিন ব্যবহার করলেই কম
    আলোর পর্দার সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া যায়।
    পাশাপাশি কিছুক্ষণ ব্যবহার
    না করা হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে পর্দার আলো বন্ধ রাখার
    সুবিধাটিও চালু রাখা উচিত।
    প্রয়োজন ছাড়া সব বেতার সংযোগ বন্ধ
    জিপিআরএস/এজ, জিপিএস, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথের
    মতো বেতার সংযোগগুলো প্রয়োজনের সময় ছাড়া বন্ধ
    রাখা উচিত। কারণ, এই সংযোগগুলো চালু
    থাকলে সেগুলো নিকটবর্তী সংযোগ উৎসটি খুঁজে বের
    করার চেষ্টা করতে থাকে। আর এই সময়ে যে পরিমাণ
    ব্যাটারি খরচ হয়, তা সেবা ব্যবহারের সময়ের চেয়েও
    বেশি।
    পুশ নোটিফিকেশন বন্ধ রাখা
    ই-মেইল, ফেসবুক, গুগল প্লাস, টুইটারসহ আরও বিভিন্ন
    ধরনের অ্যাপলিকেশনে পুশ নোটিফিকেশন নামের
    একটি সুবিধা থাকে। যেটি চালু থাকলে মোবাইল
    ফোনটি একটি নির্দিষ্ট সময় পর পর সার্ভার থেকে নতুন
    তথ্য সংগ্রহ করে। ফলে প্রয়োজন না থাকলেও নির্দিষ্ট
    সময় পর পর ফোনটি নিজের মতো করে কাজ করবে, আর
    চার্জ খরচ হবে।
    ওয়াই-ফাই ভালো
    স্মার্টফোনে ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য যখনই
    সম্ভব মোবাইল নেটওয়ার্কভিত্তি ইন্টারনেট যেমন
    জিপিআরএস/এজ, থ্রিজির তুলনায় তারহীন ওয়াই-ফাই
    ভালো। পরীক্ষা করে দেখা গেছে, ওয়াই-ফাই ব্যবহারের
    সময় অন্যান্য প্রযুক্তির ইন্টারনেট ব্যবহারের চেয়ে কম
    ব্যাটারি খরচ হয়। বাসা, অফিস বা অন্য কোথাও
    ইন্টারনেট ব্যবহারর সময় সেখানে যদি ওয়াই-ফাই থাকে,
    তবে সেখানে যুক্ত হতে পারেন।
    ব্যবহার না করলে লক করে রাখা
    ব্যবহার করা না হলে ফোনটি লক করে রাখা উচিত। লক
    থাকা অবস্থাতেও কল এবং এসএমএস আসবে। ফোন
    লক করা না থাকলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে কিছু
    সেবা চলে এবং স্বাভাবিকবাবেই এতে ব্যাটারি খরচ হয়।
    আর লক করার আরও একটি সুবিধা হলো, ভুলবশত
    পর্দার কোথাও আঙুলের চাপ পড়ে কল
    চলে যাবে না বা কোনো অ্যাপ খুলবে না।
    নির্দিষ্ট ধরনের অ্যাপলিকেশন
    স্মার্টফোনে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ ব্যবহার করা যায়।
    এগুলোর ব্যবহারের জন্য বিভিন্ন মাত্রার মেমোরি,
    প্রসেসিং পাওয়ার লাগে। যেমন ভিডিও দেখা বা উচ্চ
    মানের গ্রাফিকসের গেম খেলার জন্য
    যে পরিমাণে ব্যাটারি খরচ হয়, তার থেকে অনেক কম
    ব্যাটারি খরচ হয়, যদি নোট লেখা বা ই-বুক পড়ার অ্যাপ
    ব্যবহার করা হয়। আবার একাধিক অ্যাপ একই
    সঙ্গে ব্যবহার করা হলেও দ্রুত ব্যাটারির চার্জ শেষ
    হয়ে যেতে পারে। যেমন গান
    শোনা এবং একসঙ্গে ইন্টারনেট ব্যবহার করা।
    ব্যবহারের পর অ্যাপটি বন্ধ করা
    ব্যবহার শেষ হলে অ্যাপটি বন্ধ রাখা উচিত। অনেক
    ক্ষেত্রেই অ্যাপটি মিনিমাইজ করে রাখা হলেও
    নেপথ্যে প্রসেসিং চলতে থাকে। ইন্টারনেটে যুক্ত
    থেকে ডেটা আদান-প্রদানও করতে থাকে বেশ কিছু
    অ্যাপ। অথচ এই সময়ে অ্যাপটি ব্যবহূত হচ্ছে না।
    ফোনটি কক্ষতাপমাত্রায় রাখা সর্বোত্তম
    বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া ফোন সব সময়ই কক্ষতাপমাত্রায়
    ব্যবহার করা উচিত। মোবাইল ফোন কখনোই অতিরিক্ত
    ঠান্ডা বা গরম স্থানে ফেলে রাখা উচিত নয়।
    সুবিধাজনক তাপমাত্রায় না থাকলে মোবাইল ফোনের
    চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যায়,
    এমনকি ফোনটি স্থায়ীভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।
    সাধারণত সব মোবাইল ফোনের জন্য সুবিধাজনক
    তাপমাত্রা হলো ০ থেকে ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
    সফটওয়্যার হালনাগাদ
    মোবাইল ফোন সফটওয়্যারটির (ফার্মওয়্যার নামেও
    পরিচিত) সাম্প্রতিকতম সংস্করণটি ব্যবহার
    করা ভালো। স্মার্টফোন নির্মাতার সব সময়ই ফোনের
    বিভিন্ন ত্রুটি সংশোধনের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।
    নতুন সংস্করণগুলোতে সেই বৈশিষ্টগুলো সংযোজন
    করা হয়ে থাকে। সাধরণত এই
    হালনাগাদগুলো বিনা মূল্যে নামানোর সুযোগ পাওয়া যায়।
    এমনকি ফোনে ব্যবহূত সব অ্যাপের ক্ষেত্রেও একই
    কথা প্রযোজ্য। সাম্প্রতিকতম সংস্করণগুলোতে অনেক
    নতুন বৈশিষ্ট্য যোগ করা হয়ে থাকে এবং আগের
    ত্রুটিগুলো সংশোধন করা হয়ে থাকে,
    যেগুলো অ্যাপটি সঠিকভাবে ব্যবহারে সহযোগিতা করে
    থাকে।
    অতিরিক্ত ব্যাটারি
    দ্রুত চার্জ শেষ হয়ে যায় বলে অনেকেই অতিরিক্ত
    ব্যাটারি সঙ্গে রাখেন। যেন প্রয়োজনের সময় একটির
    চার্জফুরিয়ে গেলে অপরটি ব্যবহার করা যায়।
    বর্তমান সময়ের সব স্মার্টফোনেই লিথিয়াম-আয়ন
    ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এই ধরনের ফোন দ্রুত
    চার্জ করার জন্য বিভিন্ন ধরনের যন্ত্রাংশ পাওয়া যায়।
    আবার অনেকেই অতিরিক্ত চার্জার ব্যবহার করেন।
    কেউ কেউ আবার ব্যাটারির চার্জ শেষ হয়ে যাওয়ার
    আশঙ্কায় কিছুক্ষণ পরপরই চার্জ করার চেষ্টা করেন।
    তবে জেনে রাখা ভালো, লিথিয়াম-আয়নভিত্তিক
    ব্যাটারিগুলোর ইলেকট্রন কিছুদিন পর পর পরিবর্তন
    হওয়া উত্তম। তাই মাসে অন্তত একবার ফোনের চার্জ
    সম্পূর্ণ শেষ হতে দিয়ে পুনরায় চার্জ করা উচিত।
    এতে ব্যাটারি দীর্ঘদিন ব্যবহার করা যায়।


    Source
    Last edited by babu.; September 5th, 2013 at 04:50.

  2. #2
    Member
    • sensei's Gadgets
      • Motherboard:
      • Gigabyte b250 hd3
      • CPU:
      • Intel I5 7400
      • RAM:
      • 8gb Gskill 2400bus
      • Hard Drive:
      • 1tb wdd blue
      • Graphics Card:
      • Gigabyte gtx 950
      • Display:
      • samsung 18.5inch (1360X768)
      • Sound Card:
      • built in
      • Speakers/HPs:
      • Microlab 2:1 / monk plus , KZ ate HiFi
      • Keyboard:
      • a4tech normal keyboard KR-83
      • Mouse:
      • Bloody A9
      • Controller:
      • none
      • Power Supply:
      • Cooler Master b500
      • Optical Drive:
      • Who use this nowadays Anyway?
      • Operating System:
      • Windows 10 64bit
      • Comment:
      • Poor man's fortress
      • ISP:
      • Speed Tech Online
      • Download Speed:
      • 4mbps
      • Upload Speed:
      • 2mbps
    sensei's Avatar
    Join Date
    Jul 2012
    Location
    Dhaka
    Posts
    3,510

    Default

    cortex ভার্সন কে neglect করা হইসে, আমার খুব একটা ভালো idea নাই তবে quad core cortex a7 processor dual core cortex a9 processor থেকে slow আমি যত দূর জানি

  3. #3
    Member
    • Frank3nst3in's Gadgets
      • Motherboard:
      • MSI 760GM-P33
      • CPU:
      • AMD Athlon II X4 640
      • RAM:
      • 2x2GB [Silicon Power+Transcend] DDR3-1333 CL9
      • Hard Drive:
      • Samsung 500GB F3, WD Blue 1TB, Seagate Barracuda 1TB, Hitachi 160GB
      • Graphics Card:
      • ECS EliteGroup GTX 550Ti
      • Display:
      • ASUS VX229H 21.5
      • Sound Card:
      • Creative SB X-Fi Titanium
      • Speakers/HPs:
      • Panasonic HTF600, SoundMagic E10
      • Keyboard:
      • CM Storm Devastator MS2K
      • Mouse:
      • CM Storm Devastator MB24
      • Power Supply:
      • Thermaltake LitePower500 W0316RE
      • Operating System:
      • Windows 8.1
      • ISP:
      • Banglalion
      • Download Speed:
      • 64 KBps
    Frank3nst3in's Avatar
    Join Date
    Jul 2010
    Posts
    4,246

    Default

    Whoa, a bangla blog that's actually useful.

    Quote Originally Posted by blood stain child View Post
    cortex ভার্সন কে neglect করা হইসে, আমার খুব একটা ভালো idea নাই তবে quad core cortex a7 processor dual core cortex a9 processor থেকে slow আমি যত দূর জানি
    A9 is the better one, yeah. Snapdragon 600 is the latest from Snapdragon series.

  4. #4
    Member
    Join Date
    Apr 2013
    Location
    Dhaka
    Posts
    222

    Default

    Tegra 3 use kori, apne age I tegra 4 e gelen ....

  5. #5
    Member
    • FUNNY MAGNET's Gadgets
      • Motherboard:
      • MSI G41-P26
      • CPU:
      • FORGOTTEN
      • RAM:
      • 4GB VERICO 1333
      • Hard Drive:
      • 500GB SAMSUNG (7200RPM)
      • Graphics Card:
      • dont have one
      • Display:
      • SAMSUNG 15' CRT Syncmaster 591s(WHICH I DON'T USE ANYMORE )
      • Sound Card:
      • ???
      • Power Supply:
      • NON BRAND 500W
      • Optical Drive:
      • asus 24x dvd rw
      • UPS:
      • DONT HAVE ONE
      • Operating System:
      • WIN 7 ULTIMATE 32 BIT
      • Comment:
      • F%##ING TERRIBLE. i game on a hp g62 lappy
      • ISP:
      • citycel zoom ultra
      • Download Speed:
      • CRAP
      • Upload Speed:
      • MORE CRAPPIER
      • Console:
      • 128
    FUNNY MAGNET's Avatar
    Join Date
    Sep 2012
    Location
    MIRPUR,DHAKA
    Posts
    283

    Default

    Wooh.ami ai thread kheyaly kori nai.. Maximum bangla phone suggestion related blog er moto etao dekhi bullsh*t jinish e vora!!
    First of all,lekha android phone kenar kotha tahole aikhane iphone ,bb dhuklo keme.
    eikhane khali high-end smart phone shomporke bolse..mid range-low end er kono market ny naki
    gpu shomporke kisu bole.. ar 2gb ram highend chara koyta droid e ase

    - - - Updated - - -

    @blood stain child , idont think so..a15 dual core a9 quad core er cheye valo..but the diffrence between cortex a7 vs a9 isnt as big as a9 vs a15..so if i'm not mistaken then a7 quad cores are better than a9 dual cores

  6. #6

    Default

    Bhalo guide android phone kinar jonno. Ami ektu jog kori apnader moto new generation gamer der kotha mathay rekhe ...

    1. Screen size er shathe screen resolution khub e guruttopurno bishoy. 5 inch screen theke labh ki jodi chobi shundor na dekhay? kichu bochor ager bishal projection tv r kotha apnader mone ache? 40 inch tv kintu display quality khub baje. screen resolution ta agey check korben screen size er agey.

    2. PC r moto - android mobile er cpu ar gpu r shathe compromise korben to gaming ar hd video playback bhalo hobena.

    3. je jinishgula amra kheyal korina thik moto - sensors --- jemon - Accelerometer, gyro, proximity, compass, temperature ..... etc. Phone kine bari ashben tarpor hoyo dekhben game thik moto chole na karon gyro nai or accelerometer sensor nai. like phone kaat korle gari/bonduk ghurena! GPS asha kori shob phonei ache tao dekhe niben - gps na thakle google map (kothay achen ar kothay jete chan...etc), geo-tagging... etc kaj korbena.

    4. Warranty - Samsung 24month dey jotodur jani... bd te ke kotodin dey janina ... dekhe niben. prize koyeksho taka beshi diye jodi warranty beshi paoya jay tahole shetai bhalo... bd te warranty hoyto bibhonno dokan e bubhinno rokom ... so likhay niben money receipt e warranty koto diner. emnitei ekhane pura prithibir theke dam beshi ... tarupor warranty o thik moto dite chayna eta mana koshtokor.
    Last edited by gnr; July 30th, 2013 at 06:57.

  7. #7

    Default

    Specially avoid Mediatek processors.. They give daul, quad, octa core in low price but they are so slow and unresponsive.

  8. #8

    Default

    Useful information. Thanks!

Similar Threads

  1. Replies: 13
    Last Post: September 5th, 2013, 18:12

Tags for this Thread

Posting Permissions

  • You may not post new threads
  • You may not post replies
  • You may not post attachments
  • You may not edit your posts
  •  
Page generated in 0.30376 seconds with 14 queries.