মনিকা লিউনস্কিকে নিয়ে স্ক্যান্ডালে জড়িয়ে পড়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন পরামর্শ চেয়েছিলেন অ্যাপলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের কাছে। ঘটনার রাতেই বিল স্টিভকে ফোন করে জানতে চেয়েছিলেন, ফোন স্ক্যান্ডাল থেকে মুক্তির কোনো পথ আছে কিনা। খবর হাফিংটন পোস্ট-এর।

ওয়াল্টার আইজ্যাকসনের লেখা স্টিভ জবসের জীবনীতে বলা হয়েছে ক্লিনটন-লিউনস্কি স্ক্যান্ডালের কথা। ১৯৯৮ সালে মনিকা লিউনস্কিকে নিয়ে ক্লিনটনের যে স্ক্যান্ডাল রটেছিলো এর সুরাহা জানতে গভীর রাতে স্টিভকে ফোন করেন বিল।

স্বয়ং প্রেসিডেন্টের ফোন পেয়ে স্টিভ ঠাণ্ডা মাথায় বলেছিলেন, আপনি যদি এটি করেই থাকেন তবে গোপন না করে সত্যি কথাটি জানিয়ে দেয়াই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

আইজ্যাকসন লিখেছেন, স্টিভ জবস তাকে বলেছেন, এমন একটা উত্তর দেবার পর চুপ মেরে গিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট ক্লিনটন।

জবসের মৃত্যুর পর বিল ক্লিনটন অবশ্য জবসের সঙ্গে তার গভীর বন্ধুত্বের কথা স্মরণ করে বলেছিলেন, হিলারি এবং আমার পরিবারের প্রতি স্টিভের অসম্ভব সহানুভূতি ছিলো।

এদিকে স্টিভ জবসের বায়োগ্রাফিতে কেবল বিল ক্লিনটনের প্রসঙ্গই নয় উঠে এসেছে বারাক ওবামার প্রসঙ্গও। ওবামা প্রেসিডেন্ট হবার পর স্টিভ সরাসরিই বলেছিলেন, মাত্র এক টার্মই আপনার মেয়াদ।

রাজনীতিবিদ ছাড়াও স্টিভ জবস বিল গেটসের মতো প্রযুক্তিবিদদের বিষয়েও তার কথা জানিয়ে গেছেন। স্টিভ জবসের কাছে বিল গেটস আইডিয়া চোর আর গুগলের বিরুদ্ধে তিনি থার্মোনিউক্লিয়ার যুদ্ধেরই ঘোষণা দিয়েছিলেন।

জবস বায়োগ্রাফিতে স্টিভের সহকর্মী ও অ্যাপলের বর্তমান সিইও টিম কুক বিষয়েও মন্তব্য করেছেন স্টিভ। তাতে টিম কুককে তিনি বলেছেন, আমার প্রতিচ্ছবি।
BDnews24